|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|

  আদালত
  বিক্রি নিষিদ্ধ যে ৫২ পণ্য
  Publish Time : 12 May 2019, 10:43:38:PM

বিএসটিআই’র পরীক্ষায় প্রমাণিত বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানের ৫২টি ভেজাল ও নিম্নমাণের পণ্য বাজার থেকে প্রত্যাহারের নির্দেশ দিয়েছেন হাইকোর্ট। ভেজাল প্রতিরোধে সরকারি সংস্থাগুলো ব্যর্থ বলেও মনে করেন উচ্চ আদালত।

আদালত বলেছেন, মাদকের মতো সরকারের উচিৎ ভেজাল প্রতিরোধকে এক নম্বর অগ্রাধিকার দেয়া।

রোববার (১২ মে) দুপুরে নামিদামি ব্রান্ডের নিম্নমানের এসব পণ্য প্রত্যাহারের নির্দেশ দেন আদালত।

ভেজাল পণ্যগুলো হলো- প্রাণের লাচ্ছা সেমাই, প্রাণের হলুদ গুড়া, প্রাণের কারি পাউডার, মিঠাই’র লাচ্ছা সেমাই, গ্রিন ব্লিচিংয়ের সরিষার তেল, শমনমের সরিষার তেল, বাংলাদেশ এডিবল ওয়েলের সরিষার তেল, কাশেম ফুডের চিপস, আরা ফুডের ড্রিংকিং ওয়াটার, আল সাফির ড্রিংকিং ওয়াটার, মিজান ড্রিংকিং ওয়াটার, মর্ণ ডিউয়ের ড্রিংকিং ওয়াটার, ডানকান ন্যাচারাল মিনারেল ওয়াটার, আরার ডিউ ড্রিংকিং ওয়াটার, দিঘী ড্রিংকিং ওয়াটার, ডুডলি নুডলস, শান্ত ফুডের সফট ড্রিংক পাউডার, জাহাঙ্গীর ফুড সফট ড্রিংক পাউডার, ড্যানিশের হলুদের গুড়া, ফ্রেশের হলুদ গুড়া, এসিআই’র ধনিয়ার গুড়া, ড্যানিশের কারি পাউডার, বনলতার ঘি, পিওর হাটহাজারী মরিচ গুড়া, মিষ্টিমেলা লাচ্ছা সেমাই, মধুবনের লাচ্ছা সেমাই, ওয়েল ফুডের লাচ্ছা সেমাই, এসিআই’র আয়োডিন যুক্ত লবণ, মোল্লা সল্টের আয়োডিন যুক্ত লবণ, কিং’য়ের ময়দা, রুপসার দই, মক্কার চানাচুর, মেহেদীর বিস্কুট, বাঘাবাড়ীর স্পেশাল ঘি, নিশিতা ফুডস’র সুজি, মঞ্জিলের হলুদ গুড়া, মধুমতির আয়োডিন যুক্ত লবণ, সান ফুডের হলুদ গুড়া, গ্রিন লেনের মধু, কিরণের লাচ্ছা সেমাই, ডলফিনের মরিচের গুড়া, ডলফিনের হলুদের গুড়া, সূর্যের মরিচের গুড়া, জেদ্দার লাচ্ছা সেমাই, অমৃতের লাচ্ছা সেমাই, দাদা সুপারের আয়োডিন যুক্ত লবণ, মদীনার আয়োডিন যুক্ত লবণ, নুরের আয়োডিন যুক্ত লবণ।

বিএসটিআই এসব পণ্যের মান নিয়ে প্রশ্ন তুললেও পণ্যগুলো বাজার থেকে সরিয়ে ফেলার বা জব্দ করার কোনো উদ্যোগ নেয়নি কর্তৃপক্ষ। ফলে বিষয়টি নিয়ে হাইকোর্টের দ্বারস্থ হয়েছিল কনশাস কনজ্যুমার্স সোসাইটি নামে একটি বেসরকারি ভোক্তা অধিকার সংস্থা। সেই রিট আবেদনের শুনানির পর হাইকোর্ট এ আদেশ দেন।



   শেয়ার করুন
Share Button
সংবাদটি পড়া হয়েছে মোট : 106        
   আপনার মতামত দিন

   © সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত । এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি