|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|

  দেশজুড়ে
  শ্রীনগর থানাধীন তন্তর ইউনিয়ন পরিষদ থেকে ৩০২ পিস ইয়াবাসহ লাদেন-আলামিন গ্রেফতার, ইউপি চেয়ারম্যান ও মেম্বার নির্বিকার !
  Publish Time : 29 July 2020, 9:28:58:PM

মিয়া আবদুল হান্নান : মুন্সিগঞ্জের শ্রীনগর থানার তন্তর ইউনিয়ন পরিষদের ২য় তলার দু’টি কক্ষ এলাকার চিহ্নিত মাদক (ইয়াবা) বিক্রেতা চক্রের আখড়ায় পরিণত হয়েছে। ৭ নং ওয়ার্ডের একজন ইউপিসদস্যের প্রত্যক্ষ মদদে ইয়াবা বিক্রেতা চক্র বেপরোয়া হয়ে উঠেছে। ইউনিয়ন পরিষদের ২য় তলার কেচি গেইট তালা দেয়াথাকলেও রহস্যজনকভাবে মাদক বিক্রেতারা প্রতিদিন গভীররাত পর্যন্ত অবাধে ভবনের আড্ডা দিয়ে নেশা পানি খাচ্ছে।দূর দূরন্ত থেকেও মাদক সেবিরা তন্তর ইউনিয়ন পরিষদ ভবনএলাকায় আসা যাওয়া করছে। প্রতিদিন উঠতি বয়সেরমাদক বিক্রেতারা ৪/৫টি হোন্ডা নিয়ে তন্তর বাজার ও ইউনিয়ন পরিষদের রুমে ঘন্টার পর ঘন্টা আড্ডা দিয়ে মাদক সেবন ও দেদারসে মাদক বিক্রি করে কালো টাকার মালিক বনে যাচ্ছে। এদের কোনো চাকরি ও আয়ের ব্যবস্থাও নেই বেকার তার পরেও দামী মোটরবাইক নিয়ে চলা ফেরার উৎস কি কেউ কিছু বলতে পারছে না। চিহ্নিত এসব ইয়াবা বিক্রেতা বখাটেদের উৎপাতে এলাকার শান্তিপ্রিয় জনগণ জিম্মি হয়ে পড়েছে।

স্কুল কলেজগামী ছাত্রীরা এসব বখাটেদের হাতে মাঝে মধ্যেই নানাভাবে হয়রানির শিকার হচ্ছে। এলাকাবাসি তন্তর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান জাকির হোসেনের কাছে একাধিকবার মাদক বিক্রেতাদের দৌরাত্ম বন্ধ এবং তাদের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা নেয়ার অনুরোধ জানিয়েও কোনো সাড়াপায়নি বলে অভিযোগ উঠেছে। অভিযোগ উঠছে, উক্ত জাকির হোসেন চেয়ারম্যান দিনের বেলা অফিস করার চেয়ে মাঝে মধ্যে রাতের১০/১১ টা পর্যন্ত বিভিন্ন দালালদের নিয়ে আড্ডা দিলেও তিনি মাদক বিক্রেতা চক্রকে দেখেও না দেখার ভান করেন।এলাকার জনগণ মাদক বিক্রেতা সিন্ডিকেটের দুরান্তে অতিষ্ঠ হলেও এদের দমনে ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যানের কোনো তৎপরতা চোখে পড়েনি। মাদকাসক্তি চক্রের উপদ্রব বৃদ্ধি পাওয়ায় এলাকার সম্ভ্রান্ত পরিবারগুলো চরম উৎকন্ঠায় দিন কাটাচ্ছে।নাম প্রকাশ না করার শর্তে এলাকাবাসি জানান, ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান কি কারণে গভীর রাত পর্যন্ত ইউনিয়ন পরিষদে কয়েকজন চাটুকার নিয়ে অফিস করেন তা’ বোধগম্য নয়। গত ২৭ জুলাই শ্রীনগর থানার ওসি এবং র‌্যাব গোপনসূত্রে খবর পেয়ে তন্তর গ্রামের হেলু শেখের নাতি ওআলমগীরের ছেলে লাদেন ও একই গ্রামের কথিত ডাকাত আকবরের ছেলে আলামিনকে গ্রেফতার করে তন্তর ইউনিয়ন পরিষদের ২য় তলার একটি রুম থেকে প্রায় ৩০২ পিস ইয়াবা উদ্ধার করেছে। র‌্যাব সদস্যরা লৌহজং থানার নওপাড়া হাটের একটি দোকানের সামনে অভিযান চালিয়ে মাদক বিক্রেতা লাদেনকে গ্রেফতার করে লৌহজং থানায় সোর্পদ করেছে।গ্রেফতারকৃত মাদক বিক্রেতা লাদেন ও আলামিনকে থানা থেকে ছাড়িয়ে আনতে মেম্বার কুদ্দুস জোর লবিং চালাচ্ছে বলে অভিযোগ উঠছে। এলাকার ভুক্তভোগিরা জানায়, মেম্বার কুদ্দুসের ভাগ্নে শুক্কুর আলীর দীর্ঘদিন যাবত মাদক বিক্রেতা হিসেবে পরিচিত। এছাড়া তন্তর এলাকার উঠতি বয়সের আরো ৬/৭ জন নতুন নতুন হোন্ডা নিয়ে এলাকায় নানা উৎপাত করে বেড়াচ্ছে। এদের বিরুদ্ধে কেউ মুখ খুলতে নারাজ। শেষ খবর পাওয়া পর্যন্ত লৌহজং থানা ও শ্রীনগর থানা কর্তৃপক্ষ গ্রেফতারকৃত লাদেন ও আলামিনকে ২৮জুলাই মুন্সিগঞ্জ আদালতে পাঠালে বিজ্ঞ ম্যাজিষ্ট্রেট তাদের জামিন না মঞ্জুর করে কারাগারে পাঠিয়েছে।



   শেয়ার করুন
Share Button
সংবাদটি পড়া হয়েছে মোট : 190        
   আপনার মতামত দিন



চেয়ারম্যান: আবুল কালাম আজাদ
কো-চেয়ারম্যান: দেলোয়ার হোসেন।
সম্পাদক: সেহলী পারভীন।
সামসুন নাহার কমপ্লেক্স (৫ম তলা), ৩১/সি/১ তোপখানা রোড, সেগুনবাগিচা, ঢাকা-১০০০, বাংলাদেশ।
টেলিফোন : ০২ ৯৫৫২৯৭৮, ইমেইল : toronggotv@gmail.com, toronggotvnews@gmail.com






   © সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত । এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি
Dynamic Solution IT   Dynamic Scale BD